December 10, 2019

Banner Here
ঝিনাইদহ-সহ ৩১টি জেলায় হবে এসএমই পণ্য মেলা

  •  
  •  
  •  

ঝিনাইদহের চোখঃ

আগামী বছরের জুনের মধ্যে সারা দেশের ৮ বিভাগীয় ও জেলা শহরে ৩১টি আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলার আয়োজন করবে এসএমই ফাউন্ডেশন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে এ বিষয়ে রূপরেখা চূড়ান্তকরণ কর্মশালায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ৩১ জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি, বিসিক, জেলা চেম্বার, জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি (নাসিব) এবং ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিম বলেন, সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ হতে ‘এসএমই নীতিমালা ২০১৯’ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। উক্ত নীতিমালায় সরকারের উন্নয়ন রূপকল্পসমূহ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২০২৪ সালের মধ্যে জাতীয় আয়ে (জিডিপি) এসএমই খাতের অবদান বিদ্যমান ২৫ শতাংশ থেকে ৩২ শতাংশে উন্নীতকরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। একই সাথে জিডিপিতে শিল্প খাতের অবদান বিদ্যমান ৩৫.১ ভাগ থেকে ৪০ ভাগে উন্নীত করার লক্ষ্য সরকারের। কারণ ২০৪১ সালে এসএমই খাতের ওপর ভর করে শিল্প খাতের কাঙ্খিত উন্নতি হলেই বাংলাদেশ উন্নত দেশের কাতারে যেতে পারবে।

অনুষ্ঠানে ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলাম জানান, গত অর্থবছরে দেশের ৮ বিভাগের ২৩ জেলায় সফলভাবে আঞ্চলিক মেলা আয়োজনের ধারাবাহিকতায় চলতি অর্থবছরে দেশের ৮ বিভাগের ৩১টি জেলায় আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলা আয়োজনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

জেলাগুলো হলো, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, জয়পুরহাট, নওগাঁ, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, মেহেরপুর, ঝিনাইদহ, মাগুরা, যশোর, সাতক্ষীরা, ময়মনসিংহ, শেরপুর, গাজীপুর, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, ভোলা, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, ব্রাক্ষণবাড়ীয়া, চাঁদপুর, ফেনী, চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান।

এছাড়া ফেব্রুয়ারি ২০২০ এ ঢাকায় আয়োজন করা হবে ৮ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা ২০২০।

তিনি আরো জানান, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে আয়োজিত ২৩টি আঞ্চলিক এসএমই মেলার প্রতিটিতে গড়ে প্রায় ৪৭ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে। এসব মেলায় মোট প্রায় ৯ কোটি ১৬ লক্ষ টাকার পণ্য বিক্রয় এবং প্রায় ৬ কোটি ৪৪ লক্ষ টাকার বিভিন্ন পণ্যের অর্ডার পাওয়া যায়। মেলায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন উদ্যোক্তা এসএমই ফাউন্ডেশনের প্রশিক্ষণ, বাজার সংযোগ, পরামর্শ সেবা প্রভৃতি কর্মসূচির সাথে যুক্ত হয়ে উপকৃত হচ্ছেন। এসব মেলায় গড়ে ৬৫ শতাংশ নারী এবং ৩৫ শতাংশ পুরুষ উদ্যোক্তা অংশগ্রহণ করেছেন।

আগামী ডিসেম্বর ১৯ থেকে ফেব্রুয়ারি ২০ এর মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসককে আহবায়ক, বিসিক প্রতিনিধিকে সদস্য সচিব করে আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলা আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা দেয়া কর্মশালায়।

image_print

Theme.Com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


     আরও সংবাদ

Add