September 22, 2020

Banner Here
মাতৃত্বে মানবতা ঝিনাইদহের আমেনা বেগমের

ঝিনাইদহের চোখঃ

সুখি আর সাথী দুই ছাগলছানা। জন্মের মাত্র ৪ দিন পরই তাদের মা মারা গেছে। এতিম এই দুই ছানা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন গৃহীনি আমেনা বেগম (৫৫)। যিনি এই দুই বাচ্চার দুধমার দায়িত্ব পালন করছেন। প্রতিদিন বাইরে থেকে দুধ কিনে আনেন, তা বাচ্চা দুইটিকে খাওয়ান। এছাড়াও অনান্য খাবারও দেন আমেনা বেগম। এভাবে কষ্ট করে বড় করে তুলছেন সুখি আর সাথীকে।

সুখি আর সাথী ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের একটি ছাগলের দুইটি ছানা। যাদের জন্ম হয়েছে একমাস পূর্বে একই সঙ্গে। বাচ্চা দুইটিও দেখতে খুবই সুন্দর। আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী আমেনা বেগম জানান, বাচ্চা দুইটি জন্ম নেওয়ার পর সবকিছু ভালই চলছিল। মাত্র ৪ দিন পর হঠাৎ করে মা ছাগলটা একদিন সন্ধ্যায় জ্বরে কাপতে শুরু করে। রাতের মধ্যেই সে মারা যায়। এরপর বাচ্চা দুটি’র সব দায়িত্ব পড়ে আমেনা বেগমের উপর। তিনিই এই সময় বাচ্চাদের সন্তানের মতো করে বড় করে তুলছেন।

আমেনা বেগম আরো জানান, সকাল হলেই একবার দুধ খাওয়ান বাচ্চাদের। এরপর বেলা ১১ টার দিকে ভাতের মাড় দেন। দুপুরে ভাত খাওয়ানো হয়। বিকালে আরেকবার ভাতের মাড় আর সন্ধ্যায় দুধ খাওয়ানোর পর ঘরে তুলে দেন। রাতে ভালোভাবে থাকতে পারে সে জন্য গরম জায়গা তৈরী করেন। মশারী মেলে দেন তাদের। এভাবে বাচ্চাদুটি বড় করে তুলছেন। তিনি জানান, তার চার পুত্র সন্তান রয়েছে। তাদের বড় করেছেন। এখন তারা নিজেদের পাঁয়ে দাড়িয়ে সংসার জীবনে পাড়ি দিচ্ছেন। এই সময়টা তার অবসর জীবন। ঠিক সেই সময় আরেকবার দুই বাচ্চা বড় করার দায়িত্ব পেলেন। যা কষ্ট হলেও তার খুব ভালো লাগছে বলে জানান। তবে ছাগলছানা দুইটি খুবই চঞ্চল বলে জানান এই মা।

image_print

Theme.Com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


     আরও সংবাদ

Add