November 13, 2019

Banner Here

  •  
  •  
  •  

ঝিনাইদহের চোখঃ

২০১৮ সালটা এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি খারাপ বছর ছিল। অনেকগুলো ছুটি শুক্র/শনিবারে পড়ে নষ্ট হয়েছে। রোজার ঈদের ছুটিকে আমরা বলেছিলাম বর্ধিত সপ্তাহান্ত। ঈদের তিনদিন ছুটির মাত্র ১ দিন রবিবারে পড়েছিল বলে শুক্র-শনিবারের পরে একদিন ছুটি কাটানো সম্ভব হয়েছিল। আগামী বছরটা আশা করি সে দু:খগুলো ভালোমতোই মুছে দিতে পারবে। চলুন দেখি কী ধরনের ছুটি আছে ২০১৯ সালে।

ছুটি সংক্রান্ত সরকারি গেজেট ছবি

জানুয়ারী ২০১৯: খুশি হবার কোনো কারণ নেই। এ মাসে কোনো অতিরিক্ত বন্ধ নেই। পুরোটাই অফিস করতে হবে। অবশ্য কিছু কিছু বিদেশি প্রতিষ্ঠানে পহেলা জানুয়ারী নববর্ষের বন্ধ দেয়, তবে তাদের সংখ্যা হাতে গোনা।

ফেব্রুয়ারী ২০১৯: শুরু হয়ে গেল ছুটি। এ মাসের ২১ ফেব্রুয়ারী পড়েছে বৃহস্পতিবার, তারমানে ২১-২২-২৩ ফেব্রুয়ারী একটা চমৎকার তিনদিনের ছুটি পাওয়া গেল। তখনও শীত কিছু অবশিষ্ট থাকে, ঘুরে আসতে পারেন উত্তরবঙ্গের দিকে বা শ্রীমঙ্গল।

হাল্কা শীতে চলে যেতে পারেন শ্রীমঙ্গল ছবি লেখক

মার্চ ২০১৯: এ মাসের বন্ধগুলো বেশি ভালো। ১৭ মার্চে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের বন্ধ। এ দিনটা আবার রবিবার, তারমানে ১৫-১৬-১৭ মার্চের চমৎকার একটা ছুটি। অবশ্য বর্তমান সরকার যদি নির্বাচনে হেরে যায় তবে এ ছুটিটা না পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে। তবে ২৬ মার্চের স্বাধীনতা দিবসের ছুটিটা পড়েছে মঙ্গলবার, এটা পরিবর্তন হবার কোনো সম্ভাবনা নেই।

এপ্রিল ২০১৯: একেবারে মধু মাখানো একটা মাস। তিনদিনের ছুটি পড়েছে দুবার করে। প্রথমটা ১৪ এপ্রিল। বাংলা নববর্ষের এ বন্ধের দিনটা আগামী বছরে পড়েছে রবিবারে। ফলে নতুন বছরটা উদযাপন করার জন্য পাচ্ছেন টানা তিন দিন বন্ধ। ১৪ এপ্রিল রবিবার, ১২-১৩-১৪ চমৎকারভাবে শুক্র-শনি-রবিবারে মিলে গেল।

পরবর্তী বন্ধটা শবে-বরাতের বন্ধ যেটি পাওয়া যাবে ২১ এপ্রিল। সেদিনও রবিবার, যার অর্থ আরেকটি তিনদিনের বন্ধ ১৯-২০-২১ এপ্রিল। যদিও শবে-বরাতের বন্ধটা চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল, মানে একদিন পেছাতে পারে এ বন্ধটা। তবুও বিষয়টা খারাপ না, কারণ বন্ধ পেছালেও সেটা কর্ম দিবসেই পড়বে।

মে ২০১৯: এই মাসটা শুরুই হয় বন্ধের দিন দিয়ে। আর ২০১৯ সালের এ বন্ধটা পড়েছে বুধবারে। চাইলে বৃহস্পতির দিনটা ছুটি নিয়ে হয়ে যেতে পারে লম্বা একটা ট্রিপ, ১-৪ মে পাঁচদিনের একটি চমৎকার ট্রিপও হয়ে যেতে পারে। মে মাসে অবশ্য একটা দু:খ থেকেই যাচ্ছে, ১৮ মেতে পড়া বৌদ্ধ পূর্ণিমার ছুটিটা যে পড়েছে শনিবারে।

বর্ষায় দেশের অন্যতম সেরা গন্তব্য সিলেট জেলা ছবি লেখক

জুন ২০১৯: ঈদের সময় এখন অনেকেই চিন্তা করেন পরিবারের সকলকে নিয়ে একটা লম্বা ট্যুর দেয়ার। অনেকেই দেশের বাইরেও যেতে চান। তাদের জন্য এবার সুবর্ণ সুযোগ বলতে পারেন। কারণ জুনের ২ ও ৩ তারিখ ছুটি নিলে ৯ দিনের সেই কাঙ্ক্ষিত ছুটি পেয়ে যেতে পারেন। ৩১ মে শুক্রবার আর পহেলা জুন শনিবার।

বালির উলুয়াটু টেম্পল থেকে দেখা ক্লিফ ছবি লেখক

৪-৬ জুন ঈদ উল ফিতরের বন্ধ। আবার ৭-৮ শুক্র-শনিবার। সব মিলে দু’দিন ছুটি নিয়েই পেয়ে যেতে পারেন ৩১ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত এ বিশাল ছুটি। পরিকল্পনা তাহলে এখনই শুরু করে দিতে পারেন। সড়কপথে ভুটান, দার্জিলিংয়ের সাথে সিকিম বা পুরো নয়দিনে বালিতে থাকার একটা পরিকল্পনা করতেই পারেন।

জুলাই ২০১৯: জানুয়ারীর মতোই একটা খরা মাস। কোনো অতিরিক্ত বন্ধ নেই। এ সুযোগে এতগুলো বন্ধজনিত দারিদ্র‌্য কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করতে পারেন।

আগস্ট ২০১৯: বছরের সেরা ছুটি এ মাসেই। নয় দিনের বিশাল ছুটি নেবার জন্য মাত্র ১ দিন ছুটি দরকার, আর সেটা হলো ১৪ আগস্ট। ৯-১০ তারিখের সপ্তাহান্তের সাথে সাথেই শুরু হবে তিন দিনের ১১-১৩ আগস্টের ঈদ উল আজহার ছুটি। ১৪ তারিখে কর্মদিবস থাকলেও ১৫ আগস্টের শোক দিবসের বন্ধ সাথে করে আনছে ১৬-১৭ আগস্টের সপ্তাহান্তের সাথে।

লম্বা ছুটির গন্তব্য হতে পারে থাইল্যান্ড ছবি লেখক

এখন শুধু ১৪ আগস্টের ছুটির ব্যাপারে বসকে রাজি করাতে পারলেই আপনার পথ পরিস্কার। চাকুরি জীবনের স্বপ্নের ৯ দিনের ছুটি পেয়ে যাবেন। বিদেশে ট্রিপ দেবার আরেকটা চমৎকার সুযোগ পেয়ে গেলেন। অবশ্য যাদের কোরবানীর দায়িত্ব থাকে তারা এ সুযোগ কাজে লাগাতে পারবেন না।

সেপ্টেম্বর ২০১৯: এ মাসে একমাত্র ছুটি ১০ সেপ্টেম্বর। সেদিন আশুরার ছুটি থাকবে। তবে এ ছুটিটা ঠিক সপ্তাহের মাঝখানে, মানে মঙ্গলবার দিন। তাই চাইলে যে কোনো একদিকে দু’দিন ছুটি নিয়ে লম্বা ছুটি তৈরী করার সুযোগ থেকেই যাচ্ছে।

অক্টোবর ২০১৯: সেপ্টেম্বরের মতো অক্টোবরেও একমাত্র ছুটি মঙ্গলবারে। দূর্গা পুজার এ ছুটিটা পড়েছে ৮ অক্টোবর। যথারীতি লম্বা ছুটি বানাতে হলে দুদিন মানে বুধ বৃহস্পতিবার ছুটি নিয়ে ৮ থেকে ১২ অক্টোবরের চমৎকার ছুটি তৈরী করে নিতে পারেন।

তিনদিনের ছুটিতে সেন্টমার্টিন হতে পারে প্রিয় গন্তব্য ছবি লেখক

নভেম্বর ২০১৯: আবারো তিন দিনের ছুটি! ১০ নভেম্বর ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (স) এর বন্ধ। তাই ৮-৯-১০ নভেম্বর একটা চমৎকার তিনদিনের বন্ধ পেয়ে যাচ্ছেন। শীতের শুরুতে এই বন্ধ কাজে লাগিয়ে ঘুরে আসতে পারেন দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্ট মার্টিন।

ডিসেম্বর ২০১৯: ছুটির চমক দিয়েই শেষ হতে যাচ্ছে বছরটা। তিন দিনের কোনো বন্ধ নেই বরং দুদিন এমন জায়গায় বন্ধ আছে চাইলে প্রতিটি বন্ধকেই চারদিনের চমৎকার বন্ধে রূপান্তর করা সম্ভব। প্রথম বন্ধটা বিজয় দিবসের বন্ধ ১৬ ডিসেম্বর। এদিনটা সোমবার হওয়াতে রবিবার ছুটি নিয়ে ১৩-১৬ ডিসেম্বর চমৎকার ছুটি বানিয়ে নিতে পারেন।

ডিসেম্বর হতে পারে সুন্দরবন ভ্রমণের আদর্শ সময় ছবি লেখক

বছরের শেষ বন্ধটাও মজার। ২৫ ডিসেম্বর বড়দিনের বন্ধটি পড়েছে বুধবারে। তারমানে শুধু ২৬ ডিসেম্বর ছুটি নিলেই ২৫ থেকে ২৮ ডিসেম্বরের একটা চমৎকার ছুটি পেয়ে যাচ্ছেন। এ ছুটিটা দিয়ে হয়ে যেতে পারে চমৎকার একটি সুন্দরবন ট্রিপ।

image_print

Theme.Com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


     আরও সংবাদ

Add